জহিরুল ইসলাম প্রতিবেদক বিডি-অনলাইনম ম্যাগাজিন ডটকম

মানবতা যোদ্ধা স্ত্রী, সিড়ি থেকে পড়ে পারে ভেঙ্গে যায়, মোঃ রাজিবুল ইসলাম বলেন, মানবতার নির্মম পুরস্কার আমার!!

আজ আমি ঢাকা সরকারি জাতীয় পঙ্গু হাসপাতালে, ২৩/১/২০২২ তাং সকাল ৯ টা, থেকে ২.৪৫ মিনিট পর্যন্ত আপ্রান চেষ্টা করেও আমার স্ত্রীকে ভর্তি করাতে পারিনি। আমার স্ত্রী দীর্ঘ ৮.৩০ ঘন্টা এ্যাম্বুলেন্সের ভিতরেই ছিলো। অবশেষে বাসায় ফিরে এসেছি।
বাস্তবতা কি আজ শিখে গেছি।
আজ আমি পঙ্গু হাসপাতালে সেবা পাইনি তাতে কি হয়েছে, আমি আমার স্ত্রীকে অন্য হাসপাতালে চিকিৎসা কবারো ইনশাআল্লাহ।
আমি দরিদ্র, আজ আমার কাছে লক্ষ টাকা খরচ করার মত সামর্থ নাই। তাই ছুটে গিয়েছিলাম সরকারি হাসপাতালে।
অবশেষে দুঃখ ভরা ক্লান্ত মন নিয়ে কান্না করতে করতে চোখের পানি সঙ্গী করে বাসায় ফিরে এসেছি।
আমি দুঃখ পেয়েছি, কষ্ট পেয়েছি, আমার স্ত্রী ব্যাথার যন্ত্রণা সহ্য করেছে।
আমি বাস্তবতার কাছে হেরে যাইনি, বাস্তবতা আজ আমাকে শিখিয়েছে কিভাবে বেঁচে থাকতে হয়। তিনি আর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “কিছু বলার ভাষা নেই ভাই। এভাবেই চলছে প্রতিটি জায়গাতে।
আমার ভাগ্য ভাই। আজ যেখানে আমি আপ্রান চেষ্টা করেও ভর্তি করাতে পারিনি। সেখানে আমার মত অগনিত রোগী এভাবেই ফেরত চলে যায় প্রাইভেট কোন ক্লিনিকে। চিকিৎসা দিতে গিয়ে জীবনের শেষ সম্বল ভিটাবাড়ি টুকুও বিক্রি করতে হয় অনেকের। আমার তো ভাগ্য ভালো, আমার কোন এক মুঠো জায়গাও নাই।
আপনাদের সবার দোয়ায় আল্লাহ আমার সহায় হবেন ইনশাআল্লাহ।
আমি এতটুকুই বলবো, জীবনের শেষ মূহুর্ত দেশের বৃহত্তর স্বার্থে মানবতার কল্যানে আমি নিজেকে বিষর্জন দিয়েছি মানব সেবায়। আমি সেবা পাইনি তো কি হয়েছে। আমি তো শিক্ষা পেয়েছি”।
সংগৃহীত সোশ্যাল মিডিয়ায় থেকে তথ্য।

By jahirul

Leave a Reply

Your email address will not be published.