লাইফস্টাইল ডেস্ক বিডি-অনলাইনম ম্যাগাজিন ডটকম

পদ্ধতি : প্রথমে মেরুদন্ড সোজা রেখে মাটিতে দুপা ছড়িয়ে বসুন। এবার বাম পা হাঁটু থেকে ভেঙে ডান ঊরুর ওপর এবং ডান পা একই ভাবে বাম ঊরুর ওপর রাখুন। হাত দুটো কোয়ান্টা ভঙ্গি করে চিৎ অবস্থায় দুই হাঁটুর ওপর রাখুন এবং তর্জনী ও বুড়ো আঙুল একত্রে (ছবির মতো করে) ধরে রাখুন।

দৃষ্টি স্বাভাবিক সোজা বরাবর রাখুন। এবার নাকের দুই ছিদ্র দিয়ে ধীরে ধীরে দম নিতে থাকুন। বুক ফুলিয়ে দম নিন। কয়েক সেকেন্ড দম বন্ধ রেখে পুনরায় দুই নাকের ছিদ্র দিয়েই ধীরে ধীরে দম ছাড়ুন। চোখের দৃষ্টি রাখুন নাকের অগ্রভাগে ও মনোযোগ রাখুন দমের প্রবেশ পথে নাকের ছিদ্রতে। এভাবে ১ থেকে ৫ মিনিট পর্যন্ত করতে পারেন।

কখনো পা ব্যথা হয়ে উঠলে পা পরিবর্তন করে বসতে পারেন।

উপকারিতা

১.হৃৎপিন্ড ও ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

২.হাঁপানি রোগ হতে পারে না। থাকলে ভালো উপকার পাওয়া যায়।

৩.মেরুদন্ড সোজা ও সবল রাখে।

৪.চিন্তা শক্তি, স্মৃতি শক্তি, ইচ্ছা শক্তি ও মনের একাগ্রতা বাড়ে।

৫.পায়ের পেশী ও স্নায়ু ভালো, সতেজ ও সক্রিয় থাকে, পায়ে বাত হতে পারে না।

বি.দ্র.: অবশ্যই পদ্মাসন আগে অভ্যেস করুন। তারপর প্রাণায়াম করুন।

সংগৃহিত অনলাইন নিউজ।

মডেল সুমি।

ফোটশুট জহিরুল ইসলাম।

By jahirul

Leave a Reply

Your email address will not be published.