Connect with us

Editor

সংক্ষেপে মতামত, রাষ্ট্রনায়ক চার নেতার জেল হত্যা কেন জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয় না??

বিডি-অনলাইনম ম্যাগাজিন ডটকম

সম্পাদক জহিরুল ইসলাম

Published 1nov 2022.2.30 am
৩রা নভেম্বর জাতীয় চার নেতার জেল হত্যা দিবসকে কেন জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয় না।

আগামী ৩ রাখা নভেম্বর কলঙ্কময় জেল হত্যা দিবস। ৪৭ বছর গমন করল। এখন পর্যন্ত রাষ্ট্রনায়ক চার নেতার কেন জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয় না, এটাই হল জাতীর জন্য বেদনাদায়ক । জাতীয় চার নেতার নেতৃত্বে সফল ভাবে মহান মুক্তিযুদ্ধ পরিচালিত হলো। যাদের নেতৃত্বে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ  পেলাম। যাদের বিশেষ চেষ্টা স্বাধীন বাংলাদেশ ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে ফিরে পেলাম। তাঁদের হাত ধরেই স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্র ও সরকারের পথচলা শুরু, অথচ তাদের কে রাষ্ট্রীয় ভাবে তাদের কোন স্বীকৃতি নেই।
৩ নভেম্বরের হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে আলোচনা করতে গেলে অবধারিতভাবে উঠে আসে ১৫ আগস্টের কথা।
১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট’ ঘাতকদের হাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে নিহত হলে রাজনৈতিক পটপরিবর্তন ঘটে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর খন্দকার মোশতাক আহমেদের নেতৃত্বে গঠিত সরকারে যোগদানের প্রস্তাব ছিল মন্ত্রীত্ব দিবে। জাতীয় চার নেতা ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। এ কারণেই বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রী সভার সবচাইতে ঘৃণিত বিশ্বাসঘাতক সদস্য হিসেবে পরিচিত এবং তৎকালীন স্বঘোষিত রাষ্ট্রপতি খন্দকার মোস্তাক আহমদের প্ররোচণায় এক শ্রেণীর  উচ্চাভিলাসী মধ্যম সারির জুনিয়র সেনা কর্মকর্তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাথেে বিশ্বাসঘাতক করেছেেন ।  অস্থায়ী রাস্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, বাংলদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদ, ত্রান ও পূর্ণবাসন মন্ত্রী এ এইচ এম কামরুজ্জামান এবং স্বরাস্ট্রমন্ত্রী মনসুর আলী কে ২২ আগাস্টের গ্রেফতার করা হয়। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি অবস্থায় ৩ রা নভেম্বর এই চার জাতীয় নেতাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি সেদিন জাতীয় চার নেতাকে শুধু গুলি চালিয়েই ক্ষান্ত হয়নি, কাপুরুষের মতো গুলিবিদ্ধ দেহগুলোকে বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। ইতিহাসের এই নিষ্ঠুরতম হত্যার ঘটনায় শুধু বাংলাদেশের মানুষই নয়, স্তম্ভিত হয়েছিল গোটা বিশ্ব। চার নেতার কে হত্যা পর কবর দেওয়া হয়। সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমদ, এম মনসুর আলীকে ঢাকার বনানী কবরস্থানে সমাহিত করা হলেও কামরুজ্জামানের দাফন হয় তার বাড়ি রাজশাহীতে।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.