জহিরুল ইসলাম প্রতিবেদক

বিডি-অনলাইনম ম্যাগাজিন ডটকম

Published 31Dec 2022, 10am

প্রাপ্ত পুরস্কারে উপস্থিত বিচারকদের সামনে লাথি মারা পর অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে এবং বিচারকদের অশ্লীল গালাগালি করেন।

 

 

গত শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর) জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের শেখ কামাল মিলনায়তনে বাংলাদেশ বডিবিল্ডিং ফেডারেশনের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

এই প্রতিযোগিতায় ১১ জন বিচারক প্যানেলের ঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন জাহিদ। এই রায়ে অসন্তুষ্ট হয়ে , তিনি পুরস্কারের মঞ্চেই তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পুরস্কার নিয়ে মঞ্চ নামার পর পুরস্কারে লাথি দেয় তিনি এবং অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি গালাগালি করেন। সেই পুরস্কারে লাথি মারার ও অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। এরপরই এমন কাণ্ডের কারণে আজীবন নিষিদ্ধ হলেন তিনি।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে রীতিমতো।
এ বিষয়ে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বলেন, খেলায় সময় উপস্থিত ছিল অনেক পরিবার মা, বোন, মেয় খেলোয়াড়। ‘তার এমন কর্মকান্ডে আতঙ্কিতও লজ্জিত হয়ে পড়েছিলেন অডিটোরিয়ামের অন্য শরীরগঠনবিদরাও। আমাদের প্রতিযোগিতা চলাকালীন শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছে জাহিদ হাসান। ফলে খেলাধূলায় শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে আমরা তাকে আজীবন নিষিদ্ধ করেছি। জাহিদ হাসানের লাথি দিয়ে প্রতিবাদের দৃশ্য সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সামাজিক মাধ্যমে তিনি এই আচরণের ব্যাখ্যাও দিয়েছেন তিনি, আমি প্রথম হওয়ার যোগ্য। আমাকে প্রথম দেয়া হয়নি। বিচারকরা সঠিক রায় দেননি। এর প্রতিবাদে আমি এমন আচরণ করেছি। এটা কি প্রতিবাদের অশ্লীল আচরণ তার থেকে এধরণের আচরণ প্রত্যাশা করি নাই।

 

 

By jahirul

Leave a Reply

Your email address will not be published.