Bd-onlinemagazine : ঢাকা জহিরুল ইসলাম।

করোনার ঝুঁকি এড়াতে প্রায় সাত মাস ধরে বন্ধ আছে দেশের সকল প্রেক্ষাগৃহ। অবশেষে সিনেমা হলের উপর থেকে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হচ্ছে। আগামী ১৬ অক্টোবর দেশের সব প্রেক্ষাগৃহ খুলতে পারে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ।

আজ সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে হল মালিক সমিতির সঙ্গে বৈঠক শেষে এমন তথ্য জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তথ্য সচিব কামরুন নাহার, চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা সুদীপ্ত কুমার দাস ও সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মিঁয়া আলাউদ্দিন সহ অনেকেই।

সিনেমা হল খোলার বিষয়ে হাসান মাহমুদ জানান, দেশে করোনা পরিস্থিতি যে পর্যায়ে রয়েছে তা যদি কমতে থাকে তাহলে আগামী ১৬ অক্টোবর প্রেক্ষাগৃহ খুলে দেওয়া হতে পারে বলে বিষয়টি ক্লিয়ার করেছেন। তবে সেটি অবশ্যই প্রধানমন্ত্রীর সম্মতিক্রমে। শুরুর দিকে স্বাস্থবিধি ও নির্দেশনা মেনে অর্ধেক দর্শক নিয়ে প্রেক্ষাগৃহ চালু করতে হবে। তবে পরিস্থিতির অবনতি হলে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হবে।

হিরো আলম বলে, এই মুহূর্তে আমাদের নতুন একটা মুভি দরকার। কারন নতুন মুভি না হলে দর্শকদের সিনেমা হলে আনা খুব কঠিন হয়ে যাবে। এখন পুরাতন সিনেমা দিয়ে হলে আনা যাবে না দর্শকদের। তাই দেখলাম যখন কেউ কোন রিস্ক নিচ্ছে না, আমার প্রযোজিত সিনেমাটা লকডাউন এর আগেই রিলিজ করার কথা ছিল। লকডাউন এর কারণে সিনেমাটা রিলিজ করতে পারি নাই।
এই দুর্দিন দেখলাম কেউ কোন সিনেমা রিলিজ করছে না। আর আমার সিনেমার নাম যেহেতু সাহসী হিরো আলম তাই হল মালিকের কথা চিন্তা করে রিস্ক নিলাম। আমার জীবনে প্রথম প্রযোজিত সিনেমা “সাহসী হিরো আলম” সিনেমা হল খোলার সাথে সাথেই মুক্তি পাবে।

“মালেক আফসারী” সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভে এসে বলেন,সংক্ষেপে কিছু কথা তুলে ধরলাম ঃ- আজকে হিরো আলমকে নিয়ে কথা বলব, আমি কিছু নিউজে দেখলাম হিরো আলমে সিনেমা রিলিজ হচ্ছে, সিনেমা নাম সাহসী হিরো আলম। সিনেমা কিন্ত অনেকে কাছে রেডি আছে। অনেক পরিচালক ও প্রযোজক কাছে, এ করোনা টাইমে কেহ এগিয়ে কেহ এগিয়ে আসে নাই। সিনেমা হলে মালিকদের সিনেমা দরকার ছিল। এই সময় হিরো আলম ঘোষণা দিল” সাহসী হিরো আলম ” সিনেমা নামটাই সাহসী হিরো আলম বাস্তবে কাজ টাও সাহসী। বিশ্বের কোরনা ভাইরাসের কারনে সাত-আট মাস সিনেমা হলগুলো বন্ধ ছিল। এখন স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১৬ অক্টোবর সিনেমা হলগুলো খুলবে। কোন পরিচালক ও প্রযোজক থেকে কোন সাড়াশব্দ পাওয়া গেল না। পাওয়া গেলএকমাত্র হিরো আলমের। নতুন পরিচালক দিয়ে কাজ করেছে দুঃখিত নতুন পরিচালকের নাম মনে পরছেনা, তাকে আমি সাধুবাদ জানাই। এই দুর্দি সিনেমা হলে কেহ সিনেমা রিলিজ দেয় নাই, একমাত্র হিরো আলম দিয়েছেন। হিরো আলম আমাকে বড় ভাই মানে আমাকে অনেক সম্মান করেন, আমি তাকে ছোট ভাই হিসাবে দেখি।
আমি একমত মালেক আফসারীর ভাইয়ের সাথে, হিরো আলম সিনেমা কে ভালবেসে জিরো থেকে হিরো হয়েছে। এই দুর্দিন কেহ রিস্ক নিতে চায় না। আমি মনে করি জাহিদ খান একটা সিনেমা রিলিজ দেওয়া উচিত ছিল, জাহিদ খান কাজটা হিরো আলম করে দেখাল আসলে সে হিরো আমি মনে করি। আমরা তাকে অসম্মান করি বলি সে কথা বলতে পারে না স্মার্ট না আর অনেক কিছু, হিরো আলম প্রমান করল সে সিনেমা কে কত ভালবাসে ও দেশের চলচ্চিত্র কে অনেক ভালবাসে।

By jahirul

Leave a Reply

Your email address will not be published.